রিয়েলমি ৭ প্রো বনাম রেডমি নোট ৯ প্রো ম্যাক্সঃ কোনটি সেরা দেখে নিন

রিয়েলমি ৭ প্রো বনাম রেডমি নোট ৯ প্রো ম্যাক্সঃ কোনটি সেরা দেখে নিন

 

রিয়েলমি ৭ প্রো এবং রেডমি নোট ৯ প্রো ম্যাক্স উভয় মোবাইলগুলো একটি জনপ্রিয় নাম। এদের গুণাগুণ এবং ফিচার দেওয়া হয়েছে দুর্দান্ত। প্রায় সব রকম সুযোগ সুবিধা মিলবে এই ফোন গুলো থেকে। ফিচার কিছুটা আলাদা হওয়ার কারণে এর মূল্য ও কিছুটা কম বেশি রয়েছে। চলুন তুলনা করা যাক মোবাইল ২ টির মধ্যে।

 

প্রথমেই আলোচনা করা যাক ডিসপ্লে সেকশন নিয়ে।

 

রিয়েলমি ৭ প্রোঃ এই মোবাইলটির সাথে দেওয়া হয়েছে ৬.৪ ইঞ্চি বিশিষ্ট সুপার অ্যামোল্ড ডিসপ্লে যার স্ক্রিন রেজুলেশন দেওয়া হয়েছে ১০৮০X২৪০০ পিক্সেল। এর পি পি আই ডেনসিটি দেওয়া হয়েছে ৪০৯। কর্নিং গরিলা গ্লাস এর নিরাপত্তা দেওয়া হয়েছে এই ফোনটিতে।

 

রেডমি নোট ৯ প্রো ম্যাক্সঃ উক্ত মোবাইলটির সাথে দেওয়া হয়েছে ৬.৬৭ ইঞ্চি বিশিষ্ট আই পি এস এল সি ডি ডিসপ্লে যার স্ক্রিন রেজুলেশন হয়েছে ১০৮০X২৩৪০ পিক্সেল। নিরাপত্তার জন্য এখানে দেওয়া হয়েছে গরিলা গ্লাস ৫।

 

এবার আলোচনা করা যাক মোবাইলগুলোর বডি নিয়ে।

 

রিয়েলমি ৭ প্রোঃ এই মোবাইলটির আয়তন হবে ১৬০.৯X৭৪.৩X৮.৭ মিলিমিটার এবং এর ওজন হবে মাত্র ১৮২ গ্রাম।

 

রেডমি নোট ৯ প্রো ম্যাক্সঃ এই মোবাইলটির আয়তন হবে ১৬৫.৭X৭৬.৬X৮.৮ মিলিমিটার এবং এর ওজন হবে মাত্র ২০৯ গ্রাম।

 

এবার আলোচনা করা যাক মোবাইলগুলোর হার্ডওয়্যার সেকশন নিয়ে।

 

রিয়েলমি ৭ প্রোঃ উক্ত মোবাইলটির সাথে দেওয়া হয়েছে কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৭২০ জি অক্টাকোর প্রসেসর। জি পি ইউ হবে অ্যাড্রিনো ৬১৮। এই মোবাইলটির সাথে দেওয়া হয়েছে ৬ জিবি র‍্যাম ও ১২৮ জিবি ফোন স্টোরেজ এছাড়া অতিরিক্তভাবে ২৫৬ জিবি স্টোরেজ ব্যবহার করা যাবে। এখানে আরো দেওয়া হয়েছে ৪,৫০০ এম এ এইচ এর ব্যাটারি সাথে দেওয়া হয়েছে ৬৫ ওয়াটের ফাস্ট চার্জ সিস্টেম, ওয়াই ফাই ৬, ব্লুটুথ ৫.১, ফেস আনলক, ফিঙ্গারপ্রিন্ট। ডুয়েল সিম ব্যবহার করা যাবে এই ফোনটিতে।

 

রেডমি নোট ৯ প্রো ম্যাক্সঃ  এই মোবাইলটির সাথে দেওয়া হয়েছে কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৭২০ জি অক্টাকোর প্রসেসর। জি পি ইউ হবে অ্যাড্রিনো ৬১৮। এই মোবাইলটির সাথে দেওয়া হয়েছে ৬ জিবি র‍্যাম ও ৬৪ জিবি ফোন স্টোরেজ এছাড়া অতিরিক্তভাবে ২৫৬ জিবি স্টোরেজ ব্যবহার করা যাবে। এখানে আরো দেওয়া হয়েছে ৫,০২০ এম এ এইচ এর ব্যাটারি, ওয়াই ফাই ৬, ব্লুটুথ ৫.০, ফিঙ্গারপ্রিন্ট, ৩৩ ওয়াটের ফাস্ট চার্জ, ডুয়েল সিম ব্যবহার করা যাবে এই ফোনটিতে। এই ফোনটির একটি বিশেষ সুবিধা দেওয়া হয়েছে সেটি হল জল প্রতিরোধী ক্ষমতা।

 

এবার আলোচনা করা যাক ফোনগুলোর ক্যামেরা সেকশন নিয়ে।

 

রিয়েলমি ৭ প্রোঃ এই মোবাইলটির সাথে দেওয়া হয়েছে কোয়াড রিয়ার ক্যামেরা সেটাপ। উক্ত ক্যামেরাগুলো হল ৬৪ মেগাপিক্সেলের প্রাথমিক ক্যামেরা, ৮ মেগাপিক্সেলের আল্ট্রা ওয়াইড, ২ মেগাপিক্সেলের পোরট্রেইট ও ২ মেগাপিক্সেলের ম্যাক্রো সেন্সর। সাথে দেওয়া হয়েছে এল ই ডি ফ্ল্যাশ। ফ্রন্ট ক্যামেরাটি হবে ৩২ মেগাপিক্সেলের। উক্ত ক্যামেরাগুলোতে দেওয়া হয়েছে এইচ ডি আর, স্লো মোশন ভিডিও, পোরট্রেইট মোড, টাইমলেপস ফটোগ্রাফি, বিউটি, ফ্লিপ সেলফি, ফ্রন্ট প্যানোরামা, নাইটস্কেপ এর সুবিধা। উভয় ক্যামেরাতেই ১০৮০ পি ৩০ এফ পি এস এর রেকর্ডিং করা যাবে।

 

রেডমি নোট ৯ প্রো ম্যাক্সঃ উক্ত মোবাইলটির সাথে দেওয়া হয়েছে কোয়াড রিয়ার ক্যামেরা সেটাপ। উক্ত ক্যামেরাগুলো হল যথাক্রমে ৬৪ মেগাপিক্সেলের, একটি ৮ মেগাপিক্সেলের , একটি ৫ মেগাপিক্সেলের ও একটি ২ মেগাপিক্সেলের। সাথে দেওয়া হয়েছে একটি এল ই ডি ফ্ল্যাশ। ফ্রন্ট ক্যামেরাটি হবে ৩২ মেগাপিক্সেলের। উক্ত ক্যামেরাগুলোতে দেওয়া হয়েছে এইচ ডি আর, প্যানোরামা, পোরট্রেইট মোড, জিও ট্যাগিং, ই আই এস, এ আই ক্যামেরা ও পি ডি এ এফ এর সুবিধা। উভয় ক্যামেরাতেই ১০৮০ পি ৩০ এফ পি এস এর রেকর্ডিং করা যাবে।

 

এবার আলোচনা করা যাক মূল্য নিয়ে।

 

রিয়েলমি ৭ প্রোঃ এই মোবাইলটির মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে ২০,৫৫৩ টাকা।

 

রেডমি নোট ৯ প্রো ম্যাক্সঃ এই মোবাইলটির মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে ১৭,১২৮ টাকা।

 

এখানে ২ টি ফোনই উন্নত কনফিগারের। তবে এর মধ্যে রিয়েলমি ৭ প্রো এর ফিচার একটু বেশি উন্নত দেওয়া হয়েছে। আমার কাছে এই ফোনটিই বেশি ভাল লেগেছে।

 

 

Related Posts

4 thoughts on “রিয়েলমি ৭ প্রো বনাম রেডমি নোট ৯ প্রো ম্যাক্সঃ কোনটি সেরা দেখে নিন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *