নতুন মনিটর কেনার সময় যেগুলো দেখে নিবেন

কোন কোম্পানির মনিটর ভাল-কোন মনিটর সবচেয়ে ভালো

কোন কোম্পানির মনিটর ভাল-কোন মনিটর সবচেয়ে ভালো

আমরা অনেকেই কম্পিউটার ব্যবহার করি আবার অনেকেই করব ভাবছি। যারা ব্যবহার করি তাদের তো আর কোন কথাই নেই। কারোর হয়ত। কপালে ভাল মনিটর ছিল আর কারোর হয়ত খারাপ। আর যারা এখনো করি না তারা হয়ত নতুন পিসি বিল্ড করতে চাচ্ছি। তবে যাই হোক, এই লেখায় আমরা আলোচনা করব যে একটা নতুন মনিটর কেনার সময় আপনার কী কী বিষয়গুলাতে নজর দেওয়া উচিত। তবে আর কথা না বাড়িয়ে চলুন দেখে আসি সেগুলো কী কী।

 

কোন কোম্পানির মনিটর ভাল-কোন মনিটর সবচেয়ে ভালো

পানির দামে মনিটর

সবার আগে আপনাকে জানতে হবে যে আপনি কেন আপনার মনিটর কিনবেন। মানে কোনধরণের কাজের জন্য আপনি মনিটর ব্যবহার করবেন। আর এইটা অবশ্যই নির্দিষ্ট হতে হবে। হয় গেমিং, প্রোফেশনাল অথবা সাধারণ সাদামাটা কাজের জন্য। যদি আপনার উদ্দেশ্য ঠিক থাকে তাহলে মনিটর বেছে নেওয়ার রাস্তা অনেক চওড়া হয়ে যায়।

কোন কোম্পানির মনিটর ভাল-কোন মনিটর সবচেয়ে ভালো

কম দামে ভালো মনিটর

আপনি যদি এখন অর্থাৎ ২০২১ সাল বা এর পরে মনিটর কিনতে চান তাহলে আপনাকে রেজুলেশান এবং পিকচার কোয়ালিটির দিকে নজর দিতে হবে। আপনার মনিটরের সাইজ কম করে হলেও ১৯২০x১০৮০ পিক্সেল হওয়া উচিত। এটা ফুল এইচডি রেজুলেশান বলে। আপনার মনিটরের রেজুলেশান যত বেশি হবে, আপনার ডিস্প্লে তে দেখানো ছবির মান তত ভাল হবে। আর যদি ৪কে মনিটর হয় তাহলে আরও অনেক পরিষ্কার হবে। তবে চেষ্টা করবেন কম করে হলেও ফুল এইচডি রেজুলেশান রাখার।

পানির দামে মনিটর

কোন কোম্পানির মনিটর ভাল-কোন মনিটর সবচেয়ে ভালো

কম দামে ভালো মনিটর

আপনাকে রেজুলেশানের পাশাপাশি রিফ্রেশ রেট বা ফ্রেমরেট এর দিকেও নজর দিতে হবে। আপনি যদি সাধারণ ব্যবহার করতে চান তাহলে ৬০ হার্যের রিফ্রেশরেট যথেষ্ঠ। যদি আপনি প্রোফেশনাল ব্যবহার এর জন্য কিনতে চান তাহলে আপনি ৭৫ হার্য বা খুব বেশি হলে ৯০ হার্যের মনিটর হলেই হয়ে যাবে। আর যদি আপনি খুব ভালমত গেমিং করতে চান তাহলে আপনার রিফ্রেশ রেট কম করে হলে ১২০ হার্য হতে হবে। তবে সাধারণ গেমিং এ র জন্য ৯০ হার্য হলেই চলে আর যদি ই-স্পোর্টস খেলার চিন্তা থাকে তাহলে কম করে হলেও ১২০ হার্যের হতে হবে। আর অনেক ই-স্পোর্টস প্লেয়ার ২৪০ ফ্রেমরেটের মনিটর ব্যবহার করেন।

কোন কোম্পানির মনিটর ভাল-কোন মনিটর সবচেয়ে ভালো

কম দামে ভালো মনিটর

রেসপন্স টাইম নিয়ে চিন্তার কিছুই নেই যদি না আপনি ই-স্পোর্ট খেলতে চান। আপনি যদি সাধারণ কাজের জন্য ব্যবহার করতে চান তাহলে ৫মিলি সেকেন্ড যথেষ্ঠ। আর গেমিং এর জন্য আপনার রেস্পন্স টাইম ১ মিলি সেকেন্ড বা এর কম হতে হবে।

কোন কোম্পানির মনিটর ভাল-কোন মনিটর সবচেয়ে ভালো

কম দামে ভালো মনিটর

পানির দামে মনিটর

আপনি যদি সাধারণ কাজের জন্য ব্যবহার করতে চান তাহলে টি এন বা আই পি এস প্যানেল হলেই হবে। আর যদি আপনার সেইরকম গেমিং এর চিন্তা থাকে তাহলে আপনি ভিএ প্যানেলের মনিটর কিনতে পারেন। আর যদি টাকা ফুরানোর যায়গা না থাকে তাহলে ওলেড মনিটর নিতে পারেন। তাহলে কোয়ালিটি আরও ভাল হবে।

কম দামে ভালো মনিটর

কোন কোম্পানির মনিটর ভাল-কোন মনিটর সবচেয়ে ভালো

আপনার যদি বাজেটে কুলায় তাহলে চেষ্টা করবেন একটা বাকানো মনিটর কেনার। যদি বাজেটে না থাকে তাহলেও কোন সমস্যা নেই। বাকানো মনিটর আপনার এক্সপেরিয়েন্স একটু মাত্র ভাল করতে পারবে এই। আর কিছু বলার নেই। তবে আইপিএস, ভিএ এবং টিএন প্যানেল নিয়েও কিছু আর্টিকেল আসতে চলেছে তাই আমাদের সাথেই থাকুন আর মনিটর কেনার সময় দেখে নেবেন যে ব্যাকলাইট ব্লিডের কোন সমস্যা আছে কিনা। সেটা নিয়েও এক আর্টিকেল আসতে চলেছে তাই, আমাদের সাথেই থাকুন।

কম দামে ভালো মনিটর

Related Posts

2 thoughts on “কোন কোম্পানির মনিটর ভাল-কোন মনিটর সবচেয়ে ভালো

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *